রিয়াদ নয় সাকিব আল হাসানকেই বানানো উচিত টি২০ অধিনায়ক?

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পুরো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জুড়েই অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে সমালোচনা হয়েছে।

শেষ টি-টোয়েন্টিতে সেই সমালোচনা আরও ডালপালা মেলেছে। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে সাকিব আল হাসানকে দিয়ে মাত্র দুই ওভার বোলিং করিয়েছেন তিনি। সপ্তম ওভারে এসে উইকেট নেয়ার পর তাকে আবার বোলিং দেয়া হয় ইনিংসের শেষদিকে। এর আগে দ্বিতীয় ম্যাচে মোসাদ্দেক হোসেন বোলিংয়ে এসে উইকেট নিলেও তাকে আর ওভারই করানো হয়নি। শুধু এই সিরিজেই নয় রিয়াদের অধিনায়কত্ব নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে গত কয়েক সিরিজ থেকে।

 

ডান হাতি ব্যাটার ক্রিজে থাকলে ডানহাতি বোলারদের বোলিংয়ে আনেন না ক্যাপ্টান রিয়াদ তেমনি বাঁ-হাতি ব্যাটার ক্রিজে থাকলে বাঁ-হাতি বোলারকেও তিনি ব্যবহার করেন না। যা এক রহস্যময় ব্যাপার। বিশ্ব ত্রিকেটের এইরকম কিছু দেখা যায় না কোন ত্রিকেট দেশই। রিয়াদের অধিনায়কত্বে সবশেষ ১৩ টি -টোয়ান্টটিতে মাত্র ১ টিতে জিতেছে বাংলাদেশ। দলের পরাজয়ের জন্য পুরো দল দায়ী হলেও অধিনায়ক রিয়াদের দায়টাই সবচেয়ে বেশি।

 

এইভাবে আর কতদিন অধিনায়ক রিয়াদকে টানবে বিসিবি। টি-টোয়ান্টি ত্রিকেটে রিয়াদের ফর্মের অবস্হাও খুবই খারাপ। গত ১৮ টি-টোয়ান্টিতে রিয়াদের স্টাইক রেট ১০০ এর উপরে ছিলেন মাত্র ৩ ম্যাচে। রিয়াদের সবচেয়ে সেরা বিকল্প হতে পারেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। টি-টোয়ান্টি ত্রিকেটের প্রতি কখনোও কোন অবহেলা ছিলো না সাকিবরে। বোর্ড থেকে অধিনায়কত্ব দেওয়া হলে সাকিব সেটা নিশ্চিতভাবে গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.