ভয়াবহ আর্থিক সঙ্কটে মধ্যদিয়ে এশিয়া কাপ আয়োজনে প্রস্তুত শ্রীলঙ্কা।

ভয়াবহ আর্থিক সঙ্কটে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। এমন অবস্থায় দেশটিতে এশিয়া কাপ আয়োজন নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছিল। যদিও ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ আয়োজন করে সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছে এই দ্বীপ দেশটি।

এরই মধ্যে টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় পৌঁছেছে পাকিস্তান দল। এর ফলে নিজেদের দেশেই এশিয়া কাপ আয়োজনের পরিকল্পনা সাজাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ২৭ আগস্ট থেকে এশিয়ার ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় এই মহাযজ্ঞ মাঠে গড়াবে। এশিয়া কাপ আয়োজনের প্রত্যাশার কথা জানিয়েছে, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সচিব মোহন ডি সিলভা জানিয়েছেন, ‘এটা ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত আমরা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের ওপর ছেড়ে দেব।

আমাদের বোর্ড সভাপতি শাম্মি সিলভা এসিসির সভাপতি জয় শাহকে আমাদের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানিয়েছেন। আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় পর্দা উঠছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। সে কথা মাথায় রেখেই এবারের এশিয়া কাপ হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। মূলত এই আসরটি হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে। যদিও সে বছরের জুলাইয়ে আসরটি স্থগিত করা হয় করোনা পরিস্থিতির কারণে।

এরপর তা পিছিয়ে নেয়া হয় ২০২১ সালের জুনে। দ্বিতীয় দফায় টুর্নামেন্টটি স্থগিত করে নতুন সূচি ঘোষণা করা হয় চলতি বছরের আগস্টে। আয়োজক শ্রীলঙ্কা ছাড়াও এশিয়া কাপে অংশ নেবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ। এ ছাড়া আরব আমিরাত, কুয়েত, সিঙ্গাপুর ও হংকং এশিয়া কাপের বাছাই পর্বে অংশ নেবে। এখান থেকে মূল আসরে জায়গা পাবে একটি দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *