আন্তর্জাতিক ওডিআইতে একমাত্র বাংলাদেশী হিসেবে ৮০০০ রানের মাইল ফলক

একদিনের ত্রিকেটে টাইগারদের সেরা ব্যাটার তামিম ইকবাল খান। রানের সংখ্যা বা শতক সব দিক দিয়েই শীর্ষে তিনি। ওডিআইতে টাইগারদের প্রায় সব রেকডের ভাগীদার তিনি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওডিআইতে আরও এক মাইকফলক স্পশ করেছেন তামিম ইকবাল। টাইগারদের প্রথম ব্যাটার হিসেবে করেছেন ওয়ানডেতে ৮০০০ রানের রেকড। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গত জুলাইয়ে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ৩৪ রানে আউট হন তামিম ইকবাল। ৫২ বলের সে ইনিংসে ভালো শুরু পেলেও নিজের কাজটা করে আসতে পারেননি। ভালো শুরু পেয়েও হতাশ করা—তামিমের এমন ইনিংসের সংখ্যা কম নয়। দেশসেরা ওপেনার হলেও আক্ষেপটা তাই থাকেই তাঁকে ঘিরে। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সে ম্যাচে যেখানে শেষ করেছিলেন, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তামিম আজ যেন সেখান থেকে শুরু করলেন!

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আজ প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামার আগে এই সংস্করণে ২২৮ ম্যাচে তামিমের রানসংখ্যা ছিল ৭৯৪৩। অর্থাৎ, ওয়ানডেতে ৮ হাজার রানের দেখা পেতে আর ৫৭ রান দরকার। লক্ষ্যটা তামিমকে হাতছানি দেওয়াতেই কি জমাট ব্যাটিং করছেন? উত্তরটা শুধু তামিমই জানেন। তাতে অবশ্য বাংলাদেশেরই লাভ হয়েছে। ওপেনিং জুটিতে এক শ পেরিয়ে যাওয়া জুটির দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ। আর তামিমও ইতিহাসের নবম ওপেনার হিসেবে ওয়ানডেতে নাম যোগ দিয়েছেন ৮ হাজার রানের ক্লাবে। ওয়ানডেতে তামিম এমনিতেও বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

আজ ২৪ওভারে সিকান্দার রাজার বলে সিঙ্গেল নিয়ে ৮ হাজার রানের মাইলফলকের দেখা পান তামিম। সে সঙ্গে বাংলাদেশও ওয়ানডে দেখা পায় নতুন এক মাইলফলকের। ওয়ানডেতে তামিমের আগে বাংলাদেশের আর কোনো ব্যাটসম্যানই যে এ ক্লাবের দেখা পাননি। ৮ হাজারি ক্লাব কেন, তামিম ছাড়া ৭ হাজারি ক্লাবের দেখাও যে আর কেউ পাননি। এই সংস্করণে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৭৫৫ রান করেছেন সাকিব আল হাসান। তামিম ওয়ানডেতে ওপেনিং পজিশন ছাড়া আর কোথাও ব্যাট করেননি। ওপেনার হিসেবে এ সংস্করণে সর্বোচ্চ রান ভারতের কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের।

৩৪৪ ম্যাচে ৩৪০ ইনিংসে ব্যাট করে ৪৮.২৯ গড়ে ১৫৩১০ রান করেছেন টেন্ডুলকার। ৮৮.০৪ স্ট্রাইকরেটে শতক ৪৫টি ও অর্ধশতক ৭৫টি। টেন্ডুলকারের পর ওপেনার হিসেবে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকাটি এমন—সনাথ জয়াসুরিয়া, ক্রিস গেইল, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, সৌরভ গাঙ্গুলী, ডেসমন্ড হেইন্স, সাঈদ আনোয়ার, হাশিম আমলা ও তামিম ইকবাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.